স্ত্রী বলছে গণধর্ষণ, স্বামী বলছে মিথ্যা

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে দেবরের বিরুদ্ধে ভাবিকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। দেবর ও তিন চাচাতো দেবর এবং দেবরের এক বন্ধুকে অভিযুক্ত করে শনিবার রাতে থানায় মামলা দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূ। এ ঘটনায় দেবরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে ওই গৃহবধূর স্বামী বলছে তার স্ত্রীর এমন অভিযোগ মিথ্যা। তাদের সাথে তার ভাই ও চাচাতো ভাইদের জমি নিয়ে বিরোধ চলছে।

জানা যায়, উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের একটি গ্রামের বাসিন্দা ওই গৃহবধূ। তার স্বামী শুক্রবার পার্শ্ববর্তী উপজেলার একটি গ্রামে রাজমিস্ত্রি শ্রমিকের কাজ করায় ওইদিন রাতে বাড়িতে আসতে পারেননি। এ অবস্থায় গৃহবধূ শুক্রবার রাত ৩টার দিকে প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে ঘর থেকে বাহির হলে তুলে নিয়ে যায় একটি দল। পরে বাড়ির পাশেই একটি গাছের বাগানে নিয়ে সবাই মিলে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে শনিবার রাতে ওই গৃহবধূ স্থানীয়দের জানিয়ে ৫ জনকে আসামী ঈশ্বরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় আসামি করা হয় উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের লঙ্গাইল গ্রামের মৃত সাহেদ আলীর ছেলে জুয়েল মিয়া, চাচাতো ভাই সোহাগ মিয়া, শামীম মিয়া ও বাবুল মিয়া ও তাদের বন্ধু আল আমিন। তবে গৃহবধূর স্বামীর দাবি তার ভাইদের বিরুদ্ধে আনা স্ত্রীর এমন অভিযোগ সত্য নয়। প্রায় দুই বছর যাবত তাদের সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে যে কারণে এমন মিথ্যা অভিযোগ।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ পীরজাদা শেখ মোহাম্মদ মোস্তাছিনুর রহমান বলেন, গণধর্ষণের অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

About admin

Check Also

বিএনপি অনেক ষড়যন্ত্র করছে, এ ষড়যন্ত্র সফল হলে বাংলাদেশ বিরাণ ভূমিতে পরিণত হবে: আনিসুল হক

বিএনপির সাহেবরা কথায় কথায় বিদেশী দুতাবাসে চলে যায়, আর পাকিস্তানের হুংকার দেয়। তারা অনেক ষড়যন্ত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *