দৌঁড় সালাউদ্দিনের কথা মনে আছে, তিনি শুধু দৌঁড়ের ওপরেই আছেন : কাজী জাফর উল্লাহ

আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের মধ্যে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। সেক্ষেত্রে আওয়ামীলীগ চায় পুরোনা সব দ্বন্দ্ব নিরোশনের মাধমে দলকে শক্তিশালী করতে। এ জন্য তারা বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করছে দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের পরামর্শে। আগামী নির্বাচন কোনো ধরনের ঝুকি নিতে চায় না দলটি বলে জানান দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ। হিংসা-বিদ্বেষ দূর করে আ’লীগকে সুসংগঠিত করতে হবে মন্তব্য করে যা বললেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ বলেছেন, “দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে সহিংসতা ও বিদ্বেষ দূর করে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।। তাছাড়া জনগনের পাশে থেকে জনগনের প্রত্যাশা পূরণের রাজনীতিই করলেই শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের রাজনীতি স্বার্থক হবে। এক্ষেত্রে পদ পজিশনের জন্য পাগল হওয়া জরুরি নয় বরং জনগনকে ভালবাসতে হবে, যা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শেখ হাসিনা আমাদের শিক্ষা দিয়েছেন। আর আওয়ামী লীগে সম্মেলনের মাধ্যমে নেত্রী থানা পর্যায়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে যাকে নির্বাচিত করবেন তাকেই মানতে হবে সবার।’
শনিবার বিকেলে ডেমরা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে ঐতিহ্যবাহী ডেমরা থানাসহ ৬৪, ৬৬, ৬৭, ৬৮, ৬৯ ও ৭০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন-২০২২ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, “ঢাকা-৫ আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লা তার নির্বাচনী এলাকা ও দলের দিক থেকে খুবই জনপ্রিয় ছিলেন। জেলে থাকা অবস্থায় মোল্লা সাহেব আমাদের খাবার নিয়ে আসতেন। হাবিবুর রহমান মোল্লা আওয়ামী লীগের নেতা ছিলেন। আপনারা যারা ডেমরায় নেতা হতে চান তারা দেখুন হাবিবুর রহমান মোল্লা কিভাবে রাজনীতি করতেন।মোল্লা ভাই রিকশা চালাতেন, পাজেরো বা বড় গাড়ি নয়।তিনি তৃণমূল নেতাকর্মীসহ মানুষকে ভালোবাসতেন।আমি অনেক কিছু দেখেছি।রাজনীতি করা অবস্থায় দেখেছি তার কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার ছিল।কিন্তু এখন যারা নেতা হতে চায় তারা বড় গাড়ি চালানোর চেষ্টা করছে, যা আওয়ামী লীগ পছন্দ করে না।ত্যাগী ও মানুষের ভালবাসার পাত্ররা দাপট দেখায় না। বরং দাপট তারাই দেখায়, যারা আওয়ামী লীগে নব্য এবং বিভিন্ন পর্যায় থেকে এসেছেন।’

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন,আপনাদের কি দৌঁড় সালাউদ্দিনের কথা মনে আছে? তিনি শুধু দৌঁড়ের ওপরেই আছেন। ঢাকা—৫ আসনে তার সন্ত্রাসী রাজত্বের পতন ঘটিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রাণপ্রিয় নেতা আমাদের মোল্লা ভাই। তাই ডেমরায় এখনো নৌকার পাগল সবাই। আওয়ামীলীগের জন্য এখনই প্রস্তুত হোন। দেশের সর্বত্র উন্নয়নের লক্ষ্যে যে কোনো মূল্যে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় এনে শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করতে হবে। আর প্রতিটি ওয়ার্ডে শক্তিশালী কমিটি থাকতে হবে। আওয়ামী লীগকে ইউনিট থেকে ওয়ার্ড পর্যায় পর্যন্ত সুসংগঠিত করতে হবে।

ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খান মাসুদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান মোল্লা সজলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফী, সহ-সভাপতি মিজবাহুর রহমান ভূঁইয়া রতন, শরফুদ্দিন আহমেদ সেন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারওয়ার কবির, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক এসকে বাদল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এফ.এম. শরিফুল ইসলাম শরীফ, সদস্য সালাউদ্দিন বাদল প্রমুখ।
এ সময় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৬৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবুল মোল্লা, ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিনসহ ডেমরা যাত্রাবাড়ী থানা এলাকা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

About admin

Check Also

স্কুলে ডেকে এনে প্রেমিককে জাপটে ধরে রোমান্সে মাতলেন ছাত্রী, এলাকাজুড়ে হইচই

সিনেমায় রোমান্টিক দৃশ্য হরহামেশাই দেখা যায়, যে সময় প্রেমিক প্রেমিকার মনেও রোমান্স জাগে। এটাই স্বাভাবিক। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *