সেতুতে টোল চাওয়ায় ৬ কর্মীকে পেটালো ছাত্রলীগ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর মীর মোশাররফ হোসেন সেতুর টোল চাওয়ায় কর্মীদের মারধর করা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে।
শুক্রবার (১৯ আগষ্ট) বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের ওই সেতুর টোলপ্লাজায় এ ঘটনা ঘটে।

টোলকর্মীদের অভিযোগ, সেতু পার হওয়ার সময় টোল চাওয়ায় কুমারখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ আলমের নেতৃত্বে সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এ হামলা চালায়। এতে ছয় টোলকর্মী আহত হন। তাদের উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন টোলকর্মীরা হলেন, শাকিল, ডাবলু, বিটু, টগর, আলম ও বিল্টু।
এদিকে, এ ঘটনায় ছাত্রলীগেরও কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে। তারাও কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন বলে দাবি করেন ছাত্রলীগ নেতারা।

এ ঘটনার সিসিটিভির কয়েকটি ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে বিষয়টি নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া শহরে জেলা ছাত্রলীগের একটি আলোচনা সভায় অংশ নিতে কুমারখালী থেকে উপজেলা ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মী মোটরসাইকেলযোগে কুষ্টিয়ার দিকে যাচ্ছিলেন। সেতুর টোল প্লাজায় পৌঁছালে সেখানে দায়িত্বরত একজন কর্মী একটি মোটরসাইকেল থামানোর চেষ্টা করেন। এসময় পেছন থেকে আরও ৩০ থেকে ৪০টি মোটরসাইকেল এসে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। প্রতিটি মোটরসাইকেলে দুই থেকে তিন জন ছিলেন। মোটরসাইকেল থেকে নেমে তারা টোল প্লাজায় দায়িত্বরত কর্মীদের ওপর চড়াও হন এবং মারধর করেন।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, টোলঘরে আদায় করা অর্থ একটি গামলা থেকে তুলে নিচ্ছেন একজন। এসময় সেখানে দায়িত্বরত একজনকে পেটানো হচ্ছে।

এ বিষয়ে টোলপ্লাজায় দায়িত্বরত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স মাইক্রোডাইনামিকের ম্যানেজার শামীম আহমেদ বলেন, বেলা ১১টার দিকে একটি মোটসাইকেলে আসা যুবকের কাছ থেকে টোল চাইলে ওই মোটরসাইকেলে থাকা যুবক টোল আদায়কারীর ওপর চড়াও হন। এরপর পেছন থেকে ৩০-৪০টি মোটরসাইকেলযোগে আসা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা এসে অতর্কিত হামলা চালায় টোল আদায়কারীদের ওপর। এতে ছয় জন আহত হন। এসময় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা টোল প্লাজা থেকে আদায়কৃত টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। হামলাকারীরা সবাই কুমারখালী উপজেলা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী বলে তিনি জানান।
এ বিষয়ে কুমারখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ আলমের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে আমার কর্মীদের ওপরও টোলপ্লাজার কর্মীরা হামলা চালিয়েছে। এতে বেশ কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মীও আহত হয়েছে।

কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে ঘটনাটি একেবারেই ঠুনকো বা তুচ্ছ। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেনি। অভিযোগ পেলেই তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
পূর্বপশ্চিম/ম

About admin

Check Also

মহিলা আ.লীগের সভাপতি চুমকি, সম্পাদক শীলা

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন মহিলা আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্ব ঘোষণা করা হয়েছে। এতে সভাপতি পদে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *