বেঁচে থাকলেন কেবল নবদম্পতি

হৃদয়ের সঙ্গে রিয়া মনির বিয়ে হয় গত শনিবার। সোমবার (১৫ আগস্ট) ছিল তাদের বৌভাত। অনুষ্ঠান শেষে বিকেলে রিয়াকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন হৃদয় ও তার পরিবারের সদস্যরা। ছেলে হৃদয়ের বাবা রুবেল গাড়ি চালাচ্ছিলেন। এতে ৫ জন নিহত ও ১ জন আহত হন। তবে এ ঘটনায় বেঁচে ফিরেছেন ওই গাড়িতে থাকা নবদম্পতি। তারা হলেন বর হৃদয় (২৬) ও কনে রিয়া মনি (২১)। এরই মধ্যে স্থানীয় হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা দিয়ে বাড়িও পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

সোমবার (১৫ আগস্ট) রাতে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, গাড়িটিতে মোট সাতজন যাত্রী ছিলেন। এর মধ্যে দুই শিশু, দুই নারী ও একজন পুরুষ মারা গেছেন। নিহতরা হলেন- রুবেল (৫০), ঝরণা (২৮), জান্নাত (৬) ও জাকারিয়া (২)। নিহত অপর ব্যক্তির পরিচয় জানা যায়নি।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উত্তরা পশ্চিম থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আরিফুজ্জামান। তিনি জানান, আহত স্বামী-স্ত্রীকে উদ্ধার করে স্থানীয় লোকজন উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তাদের চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি পাঠানো হয়েছে।

এর আগে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায় ফায়ার সার্ভিস।

উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ জানিয়েছে, প্রকল্পের জন্য নির্মিত গার্ডার ক্রেন দিয়ে সরানোর সময় হঠাৎ সেটি ঢাকা থেকে গাজীপুরের দিকে চলন্ত অবস্থায় প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে যায়। এতে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। পরে উদ্ধারকর্মীরা প্রাইভেটকারের ভেতর থেকে পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করে।

রাতে ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের ব্রিফ করে উত্তরা ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিদর্শক সৈয়দ মনিরুল ইসলাম জানান, আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে দুই শিশু, দুই নারী এবং একজন পুরুষ রয়েছে। এর আগে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেই আহত অবস্থায় দুজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

About admin

Check Also

নির্বাচনে আসলে আসুক না আসলে ফাকা মাঠেই গোল: শেখ হাসিনা

নির্বাচনে অংশ নেওয়া বা না নেওয়া রাজনতিক দলের ইচ্ছাধীন বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *