সংকটের মধ্যেই ভারত থেকে ৫০ কোটি ডলারের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কিনছে ঢাকা

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে প্রতিরক্ষা ক্রয় সংক্রান্ত ৫০ কোটি ডলারের লাইন অফ ক্রেডিট (এলওসি) চুক্তি স্বাক্ষরের পাঁচ বছর পর, ঢাকা প্রতিবেশী দেশটির কাছ থেকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কেনার প্রতি এগিয়ে যাচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ (এএফডি) ভারত থেকে যে সরঞ্জাম আমদানি করতে চায় তার তালিকা তৈরি করছে।প্রাথমিকভাবে, কর্মী বাহক সাঁজোয়া এবং বড় ট্রাক তালিকায় রয়েছে বলে একজন কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। নয়াদিল্লিতে উভয় দেশের কর্মকর্তাদের প্রযুক্তিগত পর্যায়ের বৈঠকের তিন দিন পর ভারত-বাংলাদেশ প্রতিরক্ষা সংলাপ গতকাল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সরঞ্জাম এবং সহযোগিতার ক্ষেত্রগুলোর তালিকা চূড়ান্ত হয়। এএফডির প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান সংলাপে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন।এর আগে ৪ আগস্ট পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কেনার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। ৬-৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের আগে উভয় দেশের এমন সংলাপ অনুষ্ঠিত হলো। জানা গেছে, গত কয়েক বছরে বাংলাদেশ ও ভারতের শীর্ষ প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা পারস্পরিক সফর করেছেন এবং প্রতিরক্ষা সহযোগিতার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেছেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে বাংলাদেশ সফরের সময় ভারতের তৎকালীন পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেছিলেন, বাংলাদেশ শীঘ্রই নয়াদিল্লি প্রদত্ত ৫০ কোটি ডলারের এলওসির আওতায় ভারত থেকে প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত আইটেম আমদানি করবে।

২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর ঢাকায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে ভারতের প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দের আলোচনার সময় প্রতিরক্ষা বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।২০১৭ সালের এপ্রিলে শেখ হাসিনার নয়াদিল্লি সফরের সময় ভারত বাংলাদেশের প্রতিরক্ষার জন্য ৫০০ মিলিয়ন বা ৫০ কোটি মার্কিন ডলারের এলওসির প্রতিশ্রুতি দেয়। ভারত ২০১৯ সালে এলওসি প্রদান করে। এই বছরের ১১ এপ্রিল ভারতের এক্সপোর্ট ইমপোর্ট ব্যাংক বাংলাদেশের এএফডি এর সাথে পরবর্তীতে তহবিল ছাড়ের জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে।

About admin

Check Also

বিএনপি অনেক ষড়যন্ত্র করছে, এ ষড়যন্ত্র সফল হলে বাংলাদেশ বিরাণ ভূমিতে পরিণত হবে: আনিসুল হক

বিএনপির সাহেবরা কথায় কথায় বিদেশী দুতাবাসে চলে যায়, আর পাকিস্তানের হুংকার দেয়। তারা অনেক ষড়যন্ত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *